ইউরোপিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ আয়োজিত  প্রিমিয়ার লিগ-এর চতুর্থ আসর ‘ইপিএল’ শুরু হয়েছে।

২৩মার্চ মঙ্গলবার দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ইনডোর প্লে গ্রাউন্ড-এ কেক কেটে  ইপিএল-এর উদ্বোধনী ঘোষণা করেন ইউরোপিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ –এর উপাচার্য বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক মকবুল আহমেদ খান।

মুজিববর্ষ, মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী,  স্বাধীনতা দিবস  উপলক্ষে জাকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে ইউরোপিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ  প্রিমিয়ার লিগ-এর উদ্বোধন করা হয়। এবারে  পাঁচটি দল নিয়ে এই আসর শুরু হয়েছে।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. কাজী বজলুর রহমান। তিনি বলেন,  এ প্রজন্মকে মনে রাখতে হবে স্বাধীনতা কি, মনে রাখতে হবে স্বাধীনতা একদিনে অর্জন হয়নি। শিক্ষার্থীদের তিনি শৃঙ্খলপূর্ণ জীবন যাপনের পরামর্শ দেন।

উপাচার্যের বক্তব্যে উঠে আসে স্বাধীনতার গুরুত্ব। তিনি বলেন, আমরা যদি একাত্তরে হেরে যেতাম বাঙালির একটি বিরাট অংশকে মেরে ফেলা হতো। আর যারা বেঁচে থাকতো তারা বাঙালি পরিচয়ে বেঁচে থাকতে পারতো না।

এ প্রেক্ষিতে তিনি ইউরোপিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ –এর শিক্ষার্থীদের আহ্বান জানান নিজেকে পরিপূর্ণ মানুষ হিসেবে গড়ে তোলার জন্য। শুধু শিক্ষা অর্জন নয় শারীরিক সুস্থ্যতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে খেলাধূলাকেও গুরুত্বসহকারে চর্চা করার তাগিদ দেন তিনি।

অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের সিনিয়র লেকচারার মো. এজাজুর রহমান।

অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ইপিএল কমিটি।

ইউনিভার্সিটির প্রিমিয়ার লিগ-এর মিডিয়া পার্টনার হিসাবে নবপ্রতিষ্ঠিত টিভি স্বাধীকার (প্রস্তাবিত)। স্বাধীকারের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন মিডিয়া ব্যক্তিত্ব মোস্তফা ফিরোজ।

‘ইপিএল উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও যারা উপস্থিত ছিলেন,  ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার বীর মুক্তিযোদ্ধা আ.ফ.ম গোলাম হোসেন, ট্রেজারার মো. মোশারফ হোসেন সরকার,  ব্যবসায় অনুষদের অ্যাসোসিয়েট ডিন অধ্যাপক ড. ফারজানা আলমসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকগণ, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।